উপায় অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২৷ কিভাবে উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন বিস্তারিত৷

উপায় একাউন্ট  খোলার নিয়ম 2022 নিয়ে আপনাদের মাঝে হাজির হলাম আশা করি যারা নতুন উপায় একাউন্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন তাদের ক্ষেত্রে খুবই উপকারী একটি আর্টিকেল হতে চলেছে আপনি খুব সহজেই কিন্তু একটি উপায় নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন আমাদের দেখানো পদ্ধতিগুলি অবলম্বন করে আপনি খুব সহজভাবে একটি উপায় একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

উপায় একাউন্ট তৈরি করতে কি কি প্রয়োজন এই সমস্ত বিষয় নিয়ে এবং কিভাবে আপনি একটি মোবাইল ফোন দিয়ে উপায় একাউন্ট তৈরি করবেন সেই বিষয়গুলো আপনাদের মাঝে আজকে তুলে ধরব আশা করি যারা নতুন উপায় একাউন্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন সমস্ত পদ্ধতি গুলো দেখার পর আপনি খুব সহজেই একটি নতুন উপায় একাউন্ট ক্রিয়েট করতে পারবেন অল্প কিছু সময়ের মধ্যে।

যদি আপনার কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হয় অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্ট করে জানিয়ে দেবেন আমরা সেটি সঠিক সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব কিভাবে আপনি মোবাইল ফোন দিয়ে একটি উপায় একাউন্ট তৈরি করবেন সে বিষয়গুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করব আশা করি যে কেউ এখন চাইলে উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন  আমাদের দেখানো পদ্ধতিগুলি অবশ্যই আপনাকে অবলম্বন করতে হবে বর্তমান সময়ে উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হলে।

উপায় কি ? মোবাইল ব্যাংকিং।

উপায় হচ্ছে বাংলাদেশের স্বনামধন্য একটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা অর্থাৎ আমাদের ওয়েবসাইটে এর আগে দুটি আর্টিকেল পাবলিসিটি করা হয়েছে সেখানে আমরা দেখেছিলাম নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি ও বিকাশ সম্পর্কে সেই রকম ভাবে এটি হচ্ছে একটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা যার মাধ্যমে আপনি টাকা লেনদেন করতে পারবেন খুব সহজ ভাবেই এবং একদম নিরাপদে।

বিকাশ নগদ রকেট শিওর ক্যাশ এর মত উপায় হচ্ছে একটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা নেটওয়ার্ক যেটি বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে অনেক মানুষ ব্যবহার করতেছে লেনদেন করার জন্য আপনি কিন্তু খুব সহজে খুব অল্প চার্জ এর ভিত্তিতে টাকা লেনদেন করতে পারবেন উপায় এর মাধ্যমে।

যদি উপায় এর মাধ্যমে টাকা লেনদেন করতে চান অবশ্যই আপনাকে সর্ব প্রথম একটি উপায় একাউন্ট খুলতে হবে অর্থাৎ আপনাকে একটি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে যার পরবর্তী সময় আপনি সেই অ্যাকাউন্ট থেকে লেনদেন করতে পারবেন বাংলাদেশের যেকোন প্রান্ত থেকে।

আমাদেরকে উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য সর্বপ্রথম যে জিনিসটি সংরক্ষণ করতে হবে সেটি হচ্ছে একটি (NID) এনআইডি কার্ড জাতীয় পরিচয় পত্র আমাদেরকে সংরক্ষণ করতে হবে অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র সংরক্ষণ করবেন সেই মানুষকে কেউ আমাদের প্রয়োজন হবে অ্যাকাউন্টটি তৈরি করার জন্য যেহেতু এটি লেনদেন করার জন্য একটি মোবাইল ব্যাংকিং নেটওয়ার্ক। সে তো অবশ্যই সঠিক তথ্য দিয়ে আমাদেরকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে

কোন প্রকার ভুলত্রুটি যেন না হয় তাহলে কিন্তু আপনি কোন প্রকার ভাবেই উপায় একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন না কেননা যেহেতু এটি লেনদেনের বিষয়ে অবশ্যই আপনাকে সঠিক তথ্য দিয়ে একাউন্ট চালু করতে হবে এবং পরবর্তী সময়ে আপনার কোন প্রকার সমস্যা না হয় যার জন্য আরও বিভিন্ন ধরনের কাজ আমাদেরকে অ্যাকাউন্টটি তৈরি করার সময় করতে হবে।

তাহলে চলুন আমরা দেখে নেবো কিভাবে আপনি একটি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন খুব সহজে অল্প সময়ের ভিতর বিস্তারিতভাবে স্ক্রিনশট এর মাধ্যমে শেয়ার করব যেন খুব দ্রুত সময় আপনি একটি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

উপায় একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২।

উপায় একাউন্ট তৈরি করার জন্য আমাদেরকে সর্বপ্রথম আমাদের মোবাইল ফোনে উপায় অ্যাপ ইন্সটল থাকতে হবে এর জন্য আপনি প্লে স্টোর থেকে উপায় অ্যাপ সংরক্ষণ করতে পারেন প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন উপায় অ্যাপ্লিকেশন সেখান থেকে আপনি আপনার মোবাইল ফোনে ইন্সটল করে নিবেন এর পরবর্তী কাজগুলো ধাপে ধাপে আমাদেরকে করতে হবে।

অবশ্যই আপনাকে একটি জাতীয় পরিচয় পত্র সংরক্ষণ করতে হবে তাছাড়া কিন্তু আপনি উপায় একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন না যে কারো একটি জাতীয় পরিচয় পত্র সংরক্ষণ করবেন ও জার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে আপনি উপায় একাউন্ট তৈরি করবেন তাকেও কিন্তু অবশ্যই প্রয়োজন হবে কেননা আমাদেরকে বিভিন্ন ধরনের কাজের উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে সম্পূর্ণ সিকিউরিটি রাখার জন্য যেন পরবর্তী সমস্যা না হয়।

বিশেষ করে সিকিউরিটি রাখার জন্য একজন উপায় ইউজার যেন কোন প্রকার সমস্যা সম্মুখীন না হতে হয় পরবর্তী সময়ে সে জন্য প্রথমেই তারা বিশেষ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নিয়ে থাকে যেগুলো পরবর্তী সময়ে আমাদেরকে বড় বড় সমস্যা থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করবে এবং কোন প্রকার সমস্যা হলে সেটি উপায় নিজ দায়িত্বে আপনার একাউন্টি সঠিক তথ্য যাচাই-বাছাই করে ঠিক করে দিবে।

যে কোন ডিভাইসে আপনি সর্বপ্রথম উপায় অ্যাপ ইন্সটল করে নেবেন এরপর উপায় আছে আপনি প্রবেশ করবেন নিচে একটি স্ক্রিনশট দেখতেছেন এরকম ভাবে দেখতে পারবেন আপনার এপে প্রবেশ করার পর আমাদের এখানে কাজ হচ্ছে।

Registration ” নামের যে অপশনটি রয়েছে এখানে ক্লিক করে আমাদের কে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত কাজ গুলি করতে হবে অবশ্যই শেষ পর্যন্ত কাজ করার আগে কোনভাবে অ্যাপ্লিকেশনটি কেটে দিবেন না অর্থাৎ অনেকেই হয়তো বা অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সময় অ্যাপ্লিকেশনটি ক্লিয়ার করে দেন ফোন থেকে এক্ষেত্রে কিন্তু আপনাকে আবার প্রথম থেকে কাজ শুরু করতে হবে।

না যতক্ষন না আপনার উপায় অ্যাকাউন্টটি সম্পূর্ণভাবে তৈরি হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত আপনি কোনোভাবেই আপনার মোবাইল ফোন থেকে উপায় অ্যাপ্লিকেশনটি ক্লিয়ার করবেন না তাহলে সম্পূর্ণ কাজটি করতে পারবেন একটানা।

উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে আমাদের যে যে বিষয়গুলি বা যা কিছু প্রয়োজন হবে সেগুলো এখানে সর্বপ্রথম বলে দেওয়া থাকবে যেন আপনি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করার আগে সমস্ত বিষয়ে সংরক্ষণ করতে পারেন আমাদেরকে অবশ্যই এইগুলো উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করার আগে সংরক্ষণ করতে হবে যেন আমরা খুব সহজেই উপায় অ্যাকাউন্টটি তৈরি করতে পারি।

দেখতেছেন এখানে আমাদেরকে যে যে বিষয় গুলো সংরক্ষন করতে হবে তিনটি সহজ কাজ অবলম্বন করে আমরা একটি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারব সর্বপ্রথম আমাদেরকে প্রয়োজন হবে একটি জাতীয় পরিচয় পত্র স্মার্ট কার্ড অথবা ন্যাশনাল আইডি কার্ড প্রয়োজন হবে এরপর হচ্ছে যার জাতীয় পরিচয় পত্র টি দিয়ে আপনি উপায় একাউন্ট তৈরি করবেন তার ফেস ভেরিফাই করতে হবে।

এরপর সাধারন কিছু তথ্য আপনাকে দিতে হবে একাউন্টে সুরক্ষিত রাখার জন্য এই তিনটি সহজ কাজ অবলম্বন করে একটি উপায় একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন আপনি খুব সহজভাবে। এরপর আমাদের কাজ হচ্ছে উপরে যে স্ক্রিনশটটি রয়েছে এবং সেখানে যে ” proceed ” নামের অপশনটি রয়েছে সেখানে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করতে হবে। তো এখানে ক্লিক করার পর

এরপর আমাদেরকে যে কাজটি করতে হবে উপরে যে স্ক্রিনশটটি রয়েছে এখানে সর্বপ্রথম আমাদেরকে একটি নাম্বার দিতে হবে আমি নাম্বারটা হাইড করে দিয়েছি তো দেখতে পারবেন সেখানে একটি ফাকা বক্সে রয়েছে আপনি এটি ক্লিক করে আপনার যে নাম্বার দিয়ে উপায় একাউন্টে তৈরি করতে চাচ্ছেন সেই নাম্বারটি এখানে প্রবেশ করাবেন অবশ্যই ১১ ডিজিটের মোবাইল নাম্বারটি এখানে প্রবেশ করাবেন।

বাংলাদেশের যেকোনো সিমে আপনি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা হবে না নিচেতে রয়েছেই যে সকল সিমে উপায় অ্যাকাউন্টটি খোলা যাবে কোন প্রকার সমস্যা হবে না এই সিম গুলোতে আপনি খুব দ্রুত সময়ে উপায় একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন।

নাম্বারটি লেখার পর নিচে থেকে আপনাকে সিলেক্ট করতে হবে আপনার অপারেটর অর্থাৎ আপনি কোন অপারেটরের মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করতেছেন যদি বাংলালিংক করে থাকেন অবশ্যই সেখান থেকে বাংলালিংক অপশনটি সিলেক্ট করে দিবেন আর যদি আপনি রবি ব্যবহার করে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনাকে রবি সেলেক্ট করে দিতে হবে তো আপনি যে তিনটি ব্যবহার করতেছেন যেটি দিয়ে আপনি উপায় অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন সেই সিম টি যে অপারেটরের থাকবে সেটি আপনাকে দিতে হবে।

দেওয়া হয়ে গেলে আমাদেরকে পরবর্তী কাজ করার জন্য ” verify number “অপশনটিতে ক্লিক করতে হবে এরপর আমাদের কাজ হচ্ছে. আমাদের কাছে একটি পারমিশন চাইবে সেখানে আপনি এলাউ করে দিবেন পারমিশন কি এক্ষেত্রে অটোমেটিকভাবে কিন্তু ভেরিফাই গুলো হয়ে যাবে অর্থাৎ এরপরে আমাদেরকে একটি এসএমএস পাঠানো হবে যার জন্য অটোমেটিকভাবে ভেরিফাই হয়ে যাবে যদি আপনি এলাও অপশনটি চালু করে দেন।

তো এরপর আমাদের নাম্বারে একটি OTP কোড পাঠানো হবে যে কোডটি দিয়ে আমরা পরবর্তী কাজগুলো করতে পারব অবশ্যই মোবাইল ফোনটি আপনার কাছে থাকতে হবে তাহলে কিন্তু আপনি এই কোডটি দিতে পারবেন এবং এটি হচ্ছে প্রথমবারের কোড যেটি দ্বারা আপনি নগদ একাউন্টে তৈরি করার প্রতিক্রিয়া শুরু করবেন ও পরবর্তী ধাপগুলো কাজ করতে পারবেন।

আমাদের কিন্তু পরবর্তী ধাপে যাওয়ার জন্য অবশ্যই এই কোড বসাতে হবে দেখতেছেন এখানে এক মিনিট সময় দেওয়া থাকবে এর ভিতর আপনাকে কোড বসাতে হবে ফাঁকা বক্সটিতে যখন আপনি কোন বসাবেন অটোমেটিক ভাবে এটি ভেরিফাই হয়ে যাবে আপনার কিছু করতে হবে না / যদি আপনি আগে থেকে এটি এলাও করে দিয়ে থাকেন তাহলে অটোমেটিক ভাবে ভেরিফাই হয়ে যাবে আপনাকে কোড বসাতে হবে না এসএমএস আসার সাথে সাথে ভেরিফাই হয়ে যাবে অটোমেটিক সিস্টেম।

আমাদের ভেরিফাই হয়ে গেলে এরকম একটি অপশন অটোমেটিক আসবে তো এখান থেকে আপনাকে যে কাজটি করতে হবে আপনি যে এনআইডি কার্ড টি এখানে ব্যবহার করবেন অর্থাৎ জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করবেন তার ছবি তুলতে হবে সেটি কিন্তু আপনাকে লাইভ ছবি তুলে দিতে হবে অর্থাৎ আপনি পুরনো কোন ছবি এখানে আপলোড করতে পারবেন না অবশ্যই আপনাকে সরাসরি একটি জাতীয় পরিচয় পত্র ছবি তুলে এখানে সাবমিট করতে হবে।

তো সর্বপ্রথম আমাদেরকে এখানে যে ছবিটি তুলতে হবে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফ্রন্ট পেজ এর একটি ছবি তুলতে হবে অর্থাৎ জাতীয় পরিচয় পত্র সামনের দিকে যে অংশটুকু রয়েছে এই অংশটুকুর একটি ছবি তুলতে হবে আমাদেরকে ভেরিফাই করার জন্য তো আপনি অবশ্যই সুন্দরভাবে একটি ছবি তুলে নিবেন যেন সবকিছু স্পষ্ট ভাবে বোঝা যায় যদি আপনার ছবিটি ঘোলা বা অন্যান্য সমস্যা থাকে এক্ষেত্রে কিন্তু ভেরিফাই হবে না অবশ্যই চেষ্টা করবেন একটি স্পষ্ট ছবি তোলার জন্য।

এরপর আমাদেরকে ছবির ব্যাক পাশে ছবি তুলতে হবে অর্থাৎ আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্রের পিছনের দিকে যে অংশটুকু রয়েছে সেই ছবিটি তুলতে হবে সিকিউরিটি বা বিভিন্ন সমস্যার জন্য আমি খুবই দুঃখিত এই স্ক্রিনশটটা আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে পারতেছি না তো আমি ভালোভাবে বুঝিয়ে দিচ্ছি আশা করি আপনি এই মোতাবেক কাজ করতে পারবেন তাহলে খুব সহজেই ভেরিফাই হয়ে যাবে আপনার এনআইডি কার্ড।

অবশ্যই আপনাকে ছবিগুলো খুব ভালোভাবে তুলতে হবে যেন সকল লেখা খুবই স্পষ্ট ভাবে বোঝা যায় যদি কোন প্রকার সমস্যা থাকে ছবিগুলোতে এক্ষেত্রে কোনভাবেই কিন্তু ভেরিফাই করতে পারবেন না স্পষ্ট ভাবে ছবিগুলো তুলতে হবে ছবিসহ আপনার যাবতীয় তথ্য যেন খুব স্পষ্টভাবে বুঝা যায়।

তো আপনি কোন জাতীয় পরিচয় পত্র ছবিগুলো খুব ভালোভাবে তুলে নিবেন এর পরবর্তী সময়ে আপনাকে আপনার নিজের একটি ছবি তুলতে হবে অর্থাৎ যে জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে আপনি একাউন্ট তৈরি করবেন অবশ্যই সেই মানুষটিকে প্রয়োজন হবে একাউন্টি ভেরিফাই করার জন্য এর জন্য আপনাকে পরবর্তীতে অপশন অটোমেটিক ভাবে চলে আসবে সেখানে আপনাকে ফেস ভেরিফাই করতে হবে।

খুব সহজেই আপনি ফেসবুকে করতে পারবেন এর জন্য মোবাইল ফোনের যে সামান ক্যামেরাটি রয়েছে আমাদের এখানে আপনি খুব ভালোভাবে তাকাবেন এবং দুই থেকে তিনবার আপনার চোখ বন্ধ করবেন এবং খুলবেন তাহলে কিন্তু অটোমেটিকভাবে ভেরিফাই হয়ে যাবে অনেকেই রয়েছেন যারা শুধুমাত্র ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে থাকেন এক্ষেত্রে কিন্তু বিষয়টি সম্পূর্ণ হয় না অবশ্যই আপনাকে দুই থেকে তিনবার চোখ বন্ধ এবং খুলতে হবে।

তাহলে দেখতে পারবেন অটোমেটিক ভাবে কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে খুব সহজভাবে এ কাজটি করতে পারবেন অবশ্যই মনে রাখবেন ফেস ভেরিফাই করার সময় উপরে নিয়মটি আবর্তন করতে।

তো এরপর আমাদের সামনে যে পেজটি আসবে আমরা যদি খুব ভালোভাবে ফেস ভেরিফাই ও জাতীয় পরিচয় পত্র ছবি এ থাকে এক্ষেত্রে দেখতে পারবেন এগুলো ভেরিফিকেশন হয়ে গেছে।

আপনাকে সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে দিতে হবে অর্থাৎ এর আগে যে কাজগুলো আমরা দেখলাম অবশ্যই এই গুলো আপনাকে খুব ভালোভাবে দিতে হবে তাহলে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর দেখতে পারবেন আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ভেরিফিকেশন হয়ে গেছে। আপনি কিন্তু আর জাতীয় পরিচয় পত্র এর কাজ করতে হবে না এটি সম্পূর্ণ হয়ে গেছে এখন পরবর্তী কাজ হচ্ছে।

এর পর হচ্ছে আমাদেরকে এখান থেকে আমাদের পেশা পড়তে হবে তো উপরে স্ক্রিনশটে যে তথ্যগুলি রয়েছে আপনি এখান থেকে সিলেক্ট করে দেবেন আপনি কি পেশায় যুক্ত রয়েছেন বর্তমান সময়ে এরপর আপনি সিলেক্ট করে দিবেন নারী পুরুষ বা অন্যান্য অপশন রয়েছে অবশ্য এখান থেকে সিলেক্ট করে দেবেন যেন খুব সহজেই বুঝা যায়।

এরপর আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রর সমস্ত বিষয়গুলি এখানে দেখতে পারবেন অর্থাৎ আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র থাকা ঠিকানা নাম পিতার নামঃ আরো বিভিন্ন যে তথ্যগুলো রয়েছে এগুলো এখানে দেখতে পারবেন আপনি চাইলে এখান থেকে এডিট করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা নেই যদি কোন ভুল থাকে আপনি সে ক্ষেত্রে এডিট করে দিতে পারেন এখানে তো তারপর আমাদেরকে যা করতে হবে।

সর্বশেষে যে অপশনটি রয়েছে ” Term’s and condition ” এই অপশন এর নিচে দেখতে পারবেন একটি ফাকা বক্সে রয়েছে অবশ্যই আপনি অ্যাকাউন্টটি তৈরি করার আগে তাদের পলিসি গুলো দেখে নেবেন প্রতিটি ইউজারের পলিসি দেখা অবশ্যক যখন আপনি ফাঁকা বক্সটিতে টিক দিয়ে দেবেন এরপর ” confirm ” অপশনটিতে ক্লিক করে দিবেন আমাদের পরবর্তী কাজ হচ্ছে পিন যুক্ত করা।

এখানে আমাদেরকে একটি পিন সেট করতে হবে
একাউন্ট সিকিউরিটির জন্য অবশ্যই 4 সংখ্যার একটি পিন এখানে আপনাকে যুক্ত করতে হবে দুটি বক্স রয়েছে প্রথম বক্সে যে আপনি সংখ্যাটি লিখবেন অবশ্যই সেই সংখ্যাটি দ্বিতীয় বক্সে লিখবেন দুটি সংখ্যা এক হতে হবে খুব ভালোভাবে পিনগুলো দেবেন যেন পরবর্তী সময়ে ভুলে না যান প্রতিবার লগইন করার সময় কিন্তু আপনাকে এখানে কোড দিতে হবে অর্থাৎ আপনার পিন প্রবেশ করাতে হবে।

তো আপনার এখানে পিন বসানোর পর ” confirm ” অপশনটিতে ক্লিক করে দিবেন এরপর আমাদের কাজ হচ্ছে

দেখতেছেন আমাদের এখানে সম্পূর্ণ কাজ শেষ হয়েছে তো এখন আমাদেরকে যা করতে হবে নিচে যে অপশনটি রয়েছে “ get started ” এখানে ক্লিক করে দিবেন পরবর্তী কাজটি করার জন্য।

আমাদের সকল কাজ শেষ এখন আমরা আমাদের একাউন্ট লগিন করতে পারবো রেজিস্ট্রেশন করার সমস্ত স্টেপ আমাদের কিন্তু শেষ হয়ে গেছে এখন আমরা আমাদের অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করতে পারব খুব সহজভাবে এখান থেকে আপনি অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর মত সকল ধরনের সেবা ব্যবহার করতে পারবেন যেমন সেন্ড মানি ক্যাশ আউট অ্যাড মানি আরও বিভিন্ন ধরনের যে সার্ভিস গুলো রয়েছে সেগুলো এখানে দেখতে পারবেন।

উপায় অফার এছাড়াও আপনি নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর পেয়ে যাবেন 25 টাকা ক্যাশ রেওয়ার্ডস যে টাকা আপনি রিসার্চ করতে পারবেন এখানে আপনি আরো 25 টাকা বোনাস পেতে পারেন তবে একটি শর্ত রয়েছে সেটি হচ্ছে আপনাকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর অবশ্যই সেখানে অ্যাড মানি করতে হবে অর্থাৎ আপনাকে সর্বনিম্ন 50 টাকা আপনার একাউন্টে ঢুকাতে হবে এজেন্ট হতে যদি আপনি পরবর্তী সময় 50 টাকা যে কোন নাম্বারে রিচার্জ করেন তাহলে আপনি আরো পাবেন 25 টাকা বোনাস।

আপনি মোট 50 টাকা বোনাস পেয়ে যাবেন উপায় থাকে তবে শুধুমাত্র মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন এই ক্যাশ রেওয়ার্ড দিয়ে আরও বিভিন্ন ধরনের অফার রয়েছে যে অফারগুলো নিয়ে চেষ্টা করব পরবর্তী সময় আমাদের ওয়েবসাইটে আরো একটি আর্টিকেল পাবলিশ করার জন্য উপায় মোবাইল ব্যাংকিং সম্পর্কে নিয়ে।

উপায় একাউন্ট দেখার নিয়ম।

কিভাবে আপনি উপায় একাউন্ট দেখবেন এর জন্য দুটি সিস্টেম রয়েছে যে সিস্টেম গুলো ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই উপায় একাউন্ট দেখতে পারবেন আপনার মোবাইল ফোন থেকে।

অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর একাউন্ট দেখার কোড গুলি অনেকেই হয়তো জানেন কিন্তু উপায় কিভাবে একাউন্ট দেখবেন আপনার ব্যালেন্স সহ আরও বিভিন্ন ধরনের সেটিং সহ সকল কিছু দেখতে পারবেন কোড ডায়াল সহ অ্যাপের মাধ্যমে আপনি যদি না জেনে থাকেন অবশ্যই মনে রাখবেন এই কোড ডায়াল করে আপনি খুব সহজেই আপনার উপায় একাউন্ট দেখতে পারবেন।

উপায় code

আপনি আপনার মোবাইল ফোন থেকে কোড ডায়াল এর মাধ্যমে দেখতে পারবেন আপনার ব্যালেন্স সহ সকল ধরনের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন কোন ডায়াল করে এর জন্য আপনাকে ডায়াল করতে হবে

উপায় code: *২৬৮#

এটি ডায়াল করে আপনি খুব সহজেই আপনার উপায় একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন এছাড়া আরও একটি মাধ্যম রয়েছে যার মাধ্যমে উপায় একাউন্ট দেখতে পারবেন সকল ধরনের সার্ভিস সেখান থেকে ব্যবহার করতে পারবেন এর জন্য আপনাকে উপায় ব্যবহার করতে হবে।

প্লে স্টোর থেকে সংরক্ষণ করে নিতে পারেন উপায় অ্যাপ সেখানে লগইন করে সমস্ত সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন খুব সহজে সাধারণত ভালো হবে আপনি যদি উপায়ে ব্যবহার করেন এখান থেকে আরও বেশি সুবিধা পাবেন এবং আরও দ্রুত সকল কাজ করতে পারবেন লেনদেনসহ।

শেষ কথা

আশা করি সকলের কাছে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি ভাল লেগেছে কেন না আজকে আমরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করলাম যদি আপনার বন্ধুদের মধ্যে কেউ নগদ একাউন্ট তৈরি করতে সমস্যা বোধ মনে করে থাকে অবশ্যই তাদের সাথে এই আর্টিকেলটি শেয়ার করবেন তারাও যেন এই বিষয়গুলো দেখতে পারে এবং খুব দ্রুত সময়ে এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন দিয়ে একটি উপায় একাউন্ট তৈরী করতে পারে।

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন নতুন কিছু জানার জন্য নতুন কিছু শিক্ষার জন্য ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.