টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় 2022৷ কিভাবে টিকটক আইডি ব্লু ভেরিফাই করবেন বিস্তারিত৷

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় 2022

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় 2022 নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়ে গেলাম আশা করি অনেকেই এরকম পোস্ট পেতে আগ্রহী রয়েছে কেননা আমরা সবাই চাই আমাদের টিকটক একাউন্ট ভিডিওগুলো ভাইরাল হোক বা TikTok Foryou যাক এই বিষয় সর্ম্পকে আছে আপনাদের সাথে আলোচনা করা হবে কিভাবে আপনি আপনার ভিডিওগুলি খুব দ্রুত ভাইরাল করবেন টিকটক একাউন্টে।

এই সকল বিষয় নিয়ে আজকে আপনাদের সাথে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে আমাদের আজকের মেইন টপিক হচ্ছে এবং মেইন আলোচনা হচ্ছে টিকটক ভিডিও কিভাবে ভাইরাল করা যায় এই বিষয় সর্ম্পকে আশা করি আপনি যদি আমাদের আজকের আর্টিকেলটি পড়ে অবশ্যই আপনার টিকটক ভিডিও ভাইরাল হবে এবং আপনি টিকটকের ভিডিও আপলোড করার সাথে সাথে সেই ভিডিওটি অনেক মানুষের কাছে পৌঁছাবে।

এছাড়াও আজ আমাদের আজকের আর্টিকেলে টিকটক সম্পর্কে আরো বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা কম বলা হবে যে বিষয়গুলো অবশ্যই আপনার জানার দরকার যদি আপনি টিক টক ভিডিও তৈরি করে থাকেন অবশ্যই দেখে নেবেন আমাদের আজকের আর্টিকেল এর পুরো বিষয় গুলি তাহলে আপনার টিকটকভিডিও খুব দ্রুত ভাইরাল করতে পারবেন এবং অল্পদিনেই আপনি টিকটক আইডি ভেরিফাই করতে পারবেন।

অনেকেই হয়তো চান কিভাবে টিকটক আইডি ব্লু ভেরিফাই করতে হয় এ বিষয়ে সম্পর্কে আমাদের আজকের আর্টিকেলে শেষের দিকে আলোচনা করা হবে সর্বপ্রথম আমরা কথা বলবো কিভাবে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করতে হয় কি কি কাজের মাধ্যমে আমরা আমাদের টিকটক ভিডিও ভাইরাল করতে পারবো খুব সহজে এবং খুব দ্রুত।

টিকটক কি ? – what is TikTok

এই প্রশ্নটির উত্তর হয়তো বা বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল দেশের খুব অল্প সংখ্যক মানুষ জানেন না কেননা টিকটক এখন বর্তমান সময়ে ছোট একটি বাসা থেকে বৃদ্ধ মানুষ পর্যন্ত ব্যবহার করতেছে যে টিক টিক টক এ প্রবেশ করার পর আমরা দেখতে পাই বিভিন্ন ধরনের ভিডিওর মাধ্যমে একদম বাচ্চা থেকে বৃদ্ধ মানুষ কিন্তু টিকটকের ভিডিও আপলোড করতেছে যেগুলা এখন আমরা টিকটকের প্রবেশ করার পর দেখতে পাই।

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় 2022

টিকটক হচ্ছে অনলাইন একটি সোশ্যাল ভিডিও প্ল্যাটফর্ম যেখানে শর্ট ভিডিও আপলোড করা হয় এবং সেই ভিডিওগুলো আপনি একদম বিনামূল্যে দেখতে পারবেন টিকটক থেকে একদম পাবলিক ভাবে এই ভিডিওগুলো আপলোড করতে পারবেন আপনি এবং এখান থেকে কিন্তু মানুষ খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারে যেদিন আপনার হয়তো অজানা নয় বাংলাদেশের অনেক মানুষ রয়েছে যারা খুব দ্রুত সময়ে ভাইরাল হয়েছে টিকটক থেকে।

তার কারণে বাংলাদেশের অসংখ্য তরুণ তরুণী সবাই এখন টিকটক অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতেছে যার মাধ্যমে খুব সহজে পরিচিতি পাওয়া যায় এবং খুব সহজেই আরো বিভিন্ন মাধ্যমে পরিচিতি অর্জন করা যায় আমার মনে হয় আপনি নিজেও টিকটক ব্যবহার করেন আর যদি না করেন এক্ষেত্রে কোনো কিছু বলার নেই যারা টিকটক ব্যবহার করে এবং যারা টিকটক ভিডিও তৈরি করে এদের ক্ষেত্রে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।

ভিডিও তৈরি করার পর সেই ভিডিওগুলো ভাইরাল হয় না তো কি কারনে ভিডিও ভাইরাল হয় না এবিষয়ে সম্পর্কে আমাদের আজকের আরটিকেল খুব সুন্দর ভাবে বোঝানো হবে আশা করি আপনি এই নিয়মে ভিডিওগুলি তৈরি করলে খুব দ্রুত ভাইরাল হবে ঠিক হবে এবং আপনার জনপ্রিয়তা খুব দ্রুত বেড়ে যাবে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মোটকথা টিকটক হচ্ছে এমন একটি সোশ্যাল মিডিয়া যেখানে সকল ধরনের বিনোদন এবং কার্যক্রম দেখতে পারবেন দেশের এছাড়াও এখানে মানুষ কিন্তু একদম বিনামূল্যে ভিডিওগুলো আপলোড করে থাকে এখান থেকে ইনকাম করার কোন প্রকার উপায় নেই সকল ইউজার একদম ফ্রিতে এখানে ভিডিও আপলোড করা শুধুমাত্র জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য বা ভাইরাল হওয়ার জন্য ইত্যাদি বিষয়।

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করবো কিভাবে ?

যারা টিক টক ভিডিও তৈরি করে তাদের সর্বপ্রথম প্রশ্নটি হচ্ছে কিভাবে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করবো এর উত্তর হচ্ছে আপনার টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার জন্য কিছু বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ কাজ রয়েছে যে কাজ গুলো অবশ্যই আপনাকে প্রতিটি ভিডিওতে করতে হবে যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই টিকটক ভিডিও ভাইরাল করতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে অনেকের ভিডিও খুব দ্রুত দ্রুত চলে TikTok foryou trending যাচ্ছে আপনার একটি ভিডিও ট্রেন্ডিং এ চলে যায় আপনাদেরকে পারবেন পরবর্তী সময় থেকে আপনাকে আর খুব বেশি কষ্ট করতে হবে না খুব অল্প সময়ে আপনার ভিডিওগুলো ভাইরাল হয়ে যাবে কি হবে এবং ভিডিও আপলোড করার সাথে সাথে দেখতে পাবেন অনেক বেশি পরিমাণে আগের থেকে ভিউজ হচ্ছে।

বাংলাদেশে এমন অনেক টিকটক আর রয়েছে যারা অনেক ভিডিও তৈরি করার পরও কোনো সময়ে ভাইরাল হতে পারেনি হঠাৎ একটি ভিডিও তৈরি করার পর সে ভাইরাল হয়ে যায় এরকম অনেক মানুষ বাংলাদেশের রয়েছে যেমনটি ধরুন আপনি হয়তো বা ফেসবুক বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় যদি ব্যবহার করে থাকেন এক্ষেত্রে অবশ্যই দেলোয়ার অর্থাৎ আমি টিকটক আর দেলোয়ারের কথা বলতেছি আপনি অবশ্যই এর নাম শুনেছেন।

হঠাৎ তার একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে খুবই জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পেরেছে এবং বর্তমান সময়ে কিন্তু সে আরো অন্যান্য কাজ করতেছে টিক টক এর মাধ্যমে কিন্তু আরও বিভিন্ন ধরনের কাজের সফলতা অর্জন খুব সহজেই করা যায় যার উদাহরণস্বরূপ আপনি বাংলাদেশের বড় বড় টিকটক সেলিব্রেটি দের দেখতে পারেন যারা টিকটকের মাধ্যমে সফলতা অর্জন করেছে।

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার জন্য আমাদেরকে সর্বপ্রথম যে কাজটি করতে হবে সেই কাজটি হচ্ছে আপনি যখন ভিডিও তৈরি করবেন তখন আপনাকে কিছু নিয়ম-নীতি মেনে ভিডিও গুলো তৈরি করতে হবে অর্থাৎ কিছু নিয়ম রয়েছে যে নিয়মগুলো মেনে আপনি ভিডিওটি তৈরি করলে আপনার ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে TikTok।

সর্বপ্রথম আপনি কি ধরনের ভিডিও তৈরী করতে চাচ্ছেন এই বিষয় সর্ম্পকে আপনাকে আগে ভালোভাবে ধারণা থাকতে হবে কেননা আপনি কিন্তু সব ধরনের ভিডিও তৈরী করলে আপনার ভিডিওগুলো দূরত্ব ট্রেন্ডিং ভাইরাল হবে না অবশ্যই আপনাকে একটি টপিক নিয়ে ভিডিও তৈরি করতে হবে যদি আপনি ফানি টপিক নিয়ে ভিডিও তৈরি করেন এক্ষেত্রে আপনাকে সবসময় ফানি টাইপের ভিডিও আপলোড করতে হবে।

তাহলে কিন্তু আপনার টিকটক ভিডিও গুলো খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে যাবে অবশ্যই আপনাদের সর্বপ্রথম যাচাই করতে হবে আপনি কি বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করবেন এরপর আপনাকে ভিডিওগুলো তৈরি করতে হবে আপনার বিষয়টির ওপর খুব সুন্দর করে ভিডিওগুলো তৈরি করতে হবে তাহলে খুব দ্রুত আপনার ভিডিওগুলি ভাইরাল হয়ে যাবে টিকটকের মধ্যে যেগুলো আমরা দেখতে পাই অনেকেই খুব দ্রুত তাদের ভিডিওগুলো ট্রেন্ডিং এ নিয়ে যাচ্ছে।

সর্বপ্রথম আপনার একটি টিকটক একাউন্ট থাকতে হবে যদি আপনি এর আগে কখনো টিকটক একাউন্ট না করে থাকেন তাহলে আপনাকে একটি সাজেশন করব অবশ্যই আপনার টিকটক একাউন্ট ফেসবুক আইডির মাধ্যমে তৈরি করবেন অর্থাৎ আমরা যখন টিকটক একাউন্ট তৈরি করতে যাব তখন আমাদের থেকে কিছু ইনফরমেশন চাইবে।

এবং টিকটক একাউন্ট খোলার জন্য আপনি গুগল জিমেইল টুইটার ফেসবুক আরো বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার করতে পারেন যার মাধ্যমে একটি টিকটক একাউন্ট খুব দ্রুত সময়ে খুলতে পারবেন এবং একটি সোশ্যাল মিডিয়া দিয়ে একটি টিকটক একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন খুব সহজে।

আপনি যদি ফেসবুক দিয়ে টিকটক একাউন্ট খুলেন এক্ষেত্রে আপনাদের উপকার বা লাভ হবে সেটি হচ্ছে যখন আপনার ফেসবুক ফ্রেন্ড লিস্টের কোন ব্যক্তি টিকটক ব্যবহার করবে তার কাছে কিন্তু অটোমেটিকভাবে সাজেশন চলে যাবে আপনার আইডিটি অর্থাৎ আপনার কোন বন্ধু যদি টিক টক ভিডিও তৈরি করে এবং আপনি যদি টিকটকের প্রবেশ করেন এক্ষেত্রে মাঝেমধ্যে দেখতে পারবেন অটোমেটিকভাবে আপনার সেই বন্ধুর ভিডিও আপনার সামনে চলে এসেছে।

এজন্য আমি আপনাকে সাজেশন করব অবশ্যই টিকটক একাউন্ট তৈরি করার সময় আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলবেন এক্ষেত্রে বিশেষ কিছু সুবিধা অর্জন করতে পারবেন যার কারণে খুব দ্রুত আপনার ভিডিওগুলো ভাইরাল হবে টিকটিকে।

আশা করি বুঝেছেন অবশ্যই আপনার টিকটক একাউন্ট ফেসবুকের মাধ্যমে তৈরি করবেন তাহলে সবচেয়ে ভালো হবে এরপর হচ্ছে আপনাকে টিকটকের ভিডিও আপলোড করতে হবে তাহলে কিন্তু আপনার ভিডিওগুলো ভাইরাল হবে এখন কথা বলবো কিভাবে আপনি ভিডিওগুলো তৈরি করবেন।

টিকটক ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার অনেক রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই সুন্দর কোয়ালিটি টিকটক ভিডিও ধারণ করতে পারবেন আমি কিছু অ্যাপ্লিকেশনের নাম আপনাদের সাথে শেয়ার করব সাধারণত আমার দেখা মতে এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি দ্বারা টিকটকের ভিডিও গুলো এডিট করা হয় যার কারণে সেই ভিডিও গুলো খুব দ্রুত বের হয়ে যায় টিকটক।

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো যদি আপনি অফলাইনে ভিডিও বানান এক্ষেত্রে সর্বপ্রথম আপনি দেখুন ভাল একটি জায়গা অর্থাৎ ভালো একটি স্থান খুঁজে বের করুন যেখান থেকে ভিডিওগুলো শুট করলে খুব সুন্দর ভিডিও কোয়ালিটি আসবে এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে যেন খুব সুন্দর একটি দৃশ্য থাকে তাহলে সবচেয়ে ভালো হবে এছাড়াও আপনি বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে ব্যাকগ্রাউন্ডে সুন্দর দৃশ্য যুক্ত করতে পারবেন।

চেস্টা  করবেন ভালো জায়গায় ভিডিও তৈরি করার জন্য এবং প্রথমত অবস্থায় আপনি যদি নিজের ভয়েস দিয়ে ভিডিও গুলি তৈরি করেন এক্ষেত্রে আরও সুন্দরভাবে আপনাকে ভিডিও এডিট করতে হবে কেননা যখন আপনি অন্য কারো ভয়েস ব্যবহার করবেন তখন কিন্তু ভয়েস এডিটিং আপনাকে করতে হবে না আর যদি আপনি নিজে ভয়েস দিয়ে ভিডিও তৈরি করেন এক্ষেত্রে বেশি এডিট করতে হবে।

ট্রেন্ডিং শব্দ বা গান ব্যবহার করুন।

ট্রেন্ডিং শব্দ বা গান ব্যবহার করুন। যদি আপনি অন্য কারো ভয়েসের মাধ্যমে ভিডিও গুলো তৈরি করেন তাহলে ট্রেন্ডিং এ থাকা গান অথবা শব্দ ব্যবহার করতে পারেন আপনার ভিডিওতে এক্ষেত্রে খুব দ্রুত ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে কেননা আমি নিজে দেখেছি যদি ট্রেনিংয়ে থানা কোন গান বা শব্দ দিয়ে ভিডিও তৈরি করা যায় এক্ষেত্রে কিন্তু টিকটক ভিডিও খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।

কিছুদিন পরপর দেখতে পারবেন হঠাৎ করে কোন শব্দ বা গান ভাইরাল হয়ে যাচ্ছে যেমন এখন কয়েকটি গান রয়েছে যে গানগুলো দিয়ে ভিডিও তৈরি করার পর খুব দ্রুত সেই ভিডিওগুলো ভাইরাল হচ্ছে আপনি যদি এখন টিকটক লক্ষ করেন তাহলে একই ধরনের শব্দ বা গান দিয়ে অনেক বেশি পরিমাণে ভিডিও দেখতে পারবেন যেগুলো ট্রেডিং চলতেছে আপনি চাইলে এগুলো ব্যবহার করে ভিডিও তৈরি করতে পারেন এক্ষেত্রে আরও দ্রুত বের হয়ে যাবে।

টিকটকের হঠাৎ এমন শব্দ ভাইরাল হয়ে যায় যেগুলো আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না সাধারন যদি আপনি কোন একটি ভিডিও তৈরি করেন এবং সেখান থেকে টিকটক যদি কোন প্রকার ভালো কিছু দেখতে পাই যে এই সাউন্ড বা গানটি ভাইরাল হতে পারে মানুষের কাছে পছন্দ হতে পারে তাহলে কিন্তু সেই ভিডিওটি খুব বেশি পরিমাণে ভাইরাল হয়ে যাবে।

কিছুটা অবাক হয়ে গেলাম কেননা একটি টিকটক একাউন্ট এ খুব অল্প পরিমাণে ফলোয়ার ছিল এই ধরুন 2000 মত ফলোয়ার ছিল তার প্রতিটি ভিডিওতে ভিউ হতো 200 থেকে 300 এর বেশি কিন্তু তার ভিডিওতে ভিউ হতো না কিন্তু হঠাৎ করে কালকের আগেরদিন লক্ষ করে দেখি তার অর্থাৎ ০৮/০৬/২০২২ লক্ষ্য করে দেখলাম মাত্র একটি ভিডিওতে একদিনে ৪০০কে হয়ে গেছে সম্পূর্ণ নিজের ভয়েস দিয়ে কিন্তু সে ভিডিওটি তৈরি করেছিল।

সেজন্য অবশ্যই চেষ্টা করবেন ট্রেডিং এ থাকা শব্দ বা গানগুলি ব্যবহার করার জন্য এক্ষেত্রে আপনার ভিডিও খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে যাবে এরপর হচ্ছে আমাদের অন্য একটি কাজ এটি অবশ্যই আপনারা করতে হবে ভিডিও ভাইরাল করার জন্য।

ট্রেন্ডিং হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন।

আপনি একটি বিষয় লক্ষ্য করবেন যখন কোন নতুন ইউজার এর কোন ভিডিও ভাইরাল হবে বা TikTok foryou যাবে তখন তার ভিডিওটি হ্যাশট্যাগ গুলি খুব ভালোভাবে দেখে নিবেন কেননা অনেক সময় শুধুমাত্র হ্যাশট্যাগ এর জন্য ভিডিওগুলো খুব দ্রুত সময়ে ভাইরাল হয়ে যায় যে এটি খুব সহজ একটি উপায় ভিডিও ভাইরাল করার জন্য।

বিভিন্ন ধরনের হ্যাশট্যাগ রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার ভিডিওটিকে আরো সুন্দর এবং মানুষের কাছে দ্রুত পৌঁছানোয় মাধ্যম করা যায় অবশ্যয় ট্রেন্ডিং থাকা হ্যাশট্যাগ গুলি ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন যাদের ভিডিও খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায় দেখবেন তারা কি ধরনের হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে তাদের ভিডিওতে অবশ্যই সেই ধরনের হ্যাশট্যাগ আপনি চেষ্টা করবেন আপনার ভিডিওতে ব্যবহার করার জন্য।

আমি নিচে কিছু সাধারন হ্যাশট্যাগ দিয়ে দিচ্ছি অবশ্যই হ্যাশট্যাগ গুলি ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন তাহলে যেকোনো সময় আপনার ভিডিওটি ভাইরাল হতে পারে সকলেই কিন্তু এই ধরনের হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার করে থাকে এছাড়াও ট্রেডিং এ যে হ্যান্ডসেটগুলো থাকবে অবশ্যই সেগুলো ব্যবহার করার।

টিকটক আইডি ভেরিফাই করার নিয়ম।

টিকটক আইডি ভেরিফাই করতে পারবেন আপনি নিজেও এর জন্য কিছু শর্ত রয়েছে যে শর্তগুলো আপনাকে অবশ্যই পূরণ করতে হবে তাহলে আপনি আপনার টিকটক আইডি দিয়ে খুব দ্রুত সময়ে ভেরিফাই করে নিতে পারবেন এবং তাদের পলিসি মানতে হবে আপনাকে এক্ষেত্রে কিন্তু আপনি ব্লু ভেরিফাই করতে পারবেন আপনার টিকটক আইডি টি।

বর্তমান সময়ে আপনি যদি লক্ষ্য করেন তাহলে টিক টকে অনেক একাউন্ট আমরা ভেরিফাই দেখতে পাই কেননা তারা সঠিকভাবে সকল শর্ত সম্পন্ন করেছে এবং টিকটকের সম্পূর্ণ পলিসি মেনে ভিডিও তৈরি করেছে যার কারণে তাদের ভিডিওগুলি মানুষের কাছে খুব দ্রুত পৌঁছে মানুষের থেকে খুব তাড়াতাড়ি ফলোয়ার বা ভালো ফলাফল পেয়েছে যার কারণে তাদের অ্যাকাউন্ট গুলি খুব দ্রুত সময়ে ভেরিফাই করে দেওয়া হয়েছে।

যদি আপনি অন্যের সাউন্ড ব্যবহার করেন এক্ষেত্রে আপনার একাউন্টি ভেরিফাই করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা হবে না কেননা যারা টিক্তক আইডি ভেরিফাই রয়েছে বর্তমান সময়ে তারা কিন্তু একসময় অর্থাৎ তারাও কিন্তু প্রথমত অবস্থায় টিক টক এ অন্যের ভিডিও বা সাউন্ড ব্যবহার করে আপলোড করেছে আপনি চাইলে কিন্তু অন্যের সাউন্ড ব্যবহার করে ভিডিও আপলোড করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা নেই।

অবশ্যই আপনার টিক টক এ থাকা পলিসি এগুলো মানতে হবে তাহলে আপনার আইডিটি তারা ভেরিফাই করে দিবে সর্বপ্রথম হচ্ছে আপনার ভিডিও কোয়ালিটি অবশ্যই আপনার ভিডিও কোয়ালিটি খুব ভালো হতে হবে লো কোয়ালিটি ভিডিও দিয়ে আপনি কোনোভাবেই ভেরিফাই করতে পারবেন না আপনার টিকটক আইডি টি অবশ্যই ভালো কোয়ালিটির ভিডিও আপলোড করতে হবে।

আপনি যে সাউন্ড গুলি ব্যবহার করবেন অবশ্যই সাউন্ড ক্লিয়ার জানা শোনা যায় অর্থাৎ কোনো প্রকার ঝাপসা যেন না আসে আপনি যে সাউন্ড গুলো ব্যবহার করবেন একদম ক্লিয়ার আসতে হবে সম্পূর্ণভাবে বুঝা যায় যে সেখানে কি বলা হচ্ছে।

অনেকেই আছেন যারা সম্পূর্ণ ক্লিয়ার সাউন্ড ব্যবহার করেন না যার কারণে তাদের আইডি ভেরিফাই করা সম্ভব হয় না অবশ্যই ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন সাধারণত আপনি যেকোন ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ব্যবহার করতে পারেন আপনার ভিডিও দেখাও এবং ক্লিয়ার ব্যাকগ্রাউন্ড দেখার জন্য আপনি ইউটিউব একাউন্ট টি দেখে নিতে পারেন সেখান থেকে চাইলে ব্যাকগ্রাউন্ড সংরক্ষণ করে ব্যবহার করতে পারেন

আপনাকে অবশ্যই টিক টক এ একটিভ থাকতে হবে যদি আপনি টিক টক এ অ্যাক্টিভ না থাকেন এক্ষেত্রে কিন্তু কোনভাবেই ব্লু ভেরিফাই করতে পারবেন না অবশ্যই আপনাকে টিকটকের নিয়মিত একটিভ থাকতে হবে এবং প্রতিনিয়ত ভিডিও আপলোড করতে হবে যদি আপনি প্রতিদিন নিয়ম করে ভিডিও আপলোড করেন এক্ষেত্রে আপনার ভিডিও ভাইরাল হবে পাশাপাশি আপনার ফলোয়ার খুব দ্রুত সময়ে বেড়ে যাবে।

আপনাকে অবশ্যই একটিভ থাকতে হবে এটি কিন্তু তাদের পলিসি এর মধ্যে রয়েছে যদি আপনি প্রতিনিয়ত ভিডিও আপলোড না করেন এক্ষেত্রে কিন্তু আপনার একাউন্টটা আরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হবে যেমন টিকটক আইডি ফিউজ হয়ে যেতে পারে বা আরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে।

আপনাকে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে হবে ভালো কোয়ালিটি এবং ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক জন্য অবশ্যই খুব ভালো কোয়ালিটির হয় আপনি যে ভিডিওগুলো আপলোড করবেন সেই ভিডিওগুলো খুব ভালো কোয়ালিটির করে আপলোড করবেন।

অনেকেই হয়তো জানতে চান যে কত ফলোয়ার হলে টিকটক আইডি ভেরিফাই করা যায় এ প্রশ্নটির উত্তর হচ্ছে আপনার একাউন্টে যখন 5 লক্ষ ফলোয়ার হবে তখন আপনি চাইলে আপনার টিকটক আইডি টি ভেরিফাই করতে পারবেন এর জন্য কিছু নিয়ম রয়েছে সেগুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করব আপনার টিকটক আইডি তে অবশ্যই 500k ফলোয়ার থাকতে হবে তাহলে আপনি পরবর্তী কাজগুলো করতে পারবেন এবং আপনার আইডি টি ভেরিফাই হতে পারে।

যদি আপনি নিয়মিত ভিডিও আপলোড করেন এবং খুব ভালো কোয়ালিটির ভিডিও আপলোড করেন এক্ষেত্রে কিন্তু আপনার 5 লক্ষ ফলোয়ার হতে খুব বেশি সময় লাগবে না সর্বোচ্চ 6 মাস এক বছর সময় লাগবে আপনার ভিডিওগুলি অবশ্যই ভালো হতে হবে তাহলে মানুষ আপনার ভিডিওগুলি দেখার জন্য আপনাকে ফলো করবে এবং যখন আপনি ভিডিও আপলোড করবেন সাথে সাথে কিন্তু সেই ভিডিও গুলো তাদের কাছে পৌঁছে যাবে।

যখন আপনার ভিডিওগুলো খুব ভালো হবে এবং সকল ধরনের নিয়ম-নীতি মেনে আপনি ভিডিওগুলো তৈরি করবেন তখন কিন্তু টিকটক থেকে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে এটি আগে থেকে করে রাখবেন কেননা 5 লক্ষ ফলোয়ার হওয়ার পর এই কাজগুলো করে হয়তোবা তাদের আপনার সাথে যোগাযোগ করতে কিছুটা সমস্যা হবে সেজন্য আগে থেকে আপনি এই কাজগুলো করে রাখবেন।

আপনি মেইল অ্যাকাউন্ট এখানে যুক্ত করে রাখবেন কেননা যখন আপনার আইডি টি ভেরিফাই করে দেওয়া উচিত এটি মনে করবে টিকটক তখন আপনার সাথে টিকটক কিন্তু যোগাযোগ করবে এজন্য আপনি চাইলে হোয়াটসঅ্যাপ জিমেইল এইগুলো ব্যবহার করতে পারেন অবশ্যই আপনার একাউন্টে সমস্ত স্টেপ অথবা কাজগুলো সম্পন্ন করে নিবেন। কেন টিকটক আপনার সাথে খুব দ্রুত সময়ে যোগাযোগ করতে পারে।

আপনাকে প্রথমত অবস্থায় কিছু করতে হবেনা টিকটক আপনার সাথে যোগাযোগ করবে যদি তাদের কাছে মনে হয় আপনার আইডি টি ভেরিফাই করে দেওয়া উচিত এক্ষেত্রে তারা আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং আপনার টিকটক আইডি তারা ভেরিফাই করে দেবে অবশ্যই আপনার অ্যাকাউন্টটি সমস্ত কাজ সম্পন্ন করে রাখবেন যেমন একাউন্ট সিকিউরিটি জিমেইল যুক্ত আরও বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে।

এই কাজগুলো সম্পন্ন করা থাকলে টিকটক আপনার সাথে খুব দ্রুত সময়ে যোগাযোগ করবে এবং আপনার সাথে যোগাযোগ করার পর আপনার আইডিটি খুব দ্রুত সময়ে ভেরিফাই করে দেবে।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে কাজগুলো করতে হবে যদি কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হয়ে থাকে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাবেন আমরা সেটা সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করব সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.