নগদ অ্যাকাউন্ট খুলার পদ্ধতি দেখুন৷ নগদ অ্যাকাউন্ট দেখার নিয়ম ২০২২

আসসালামুআলাইকুম হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই আশা করি সকলেই ভাল রয়েছেন বরাবরের মত আপনাদের দোয়ায় আমিও ভালো রয়েছি তাই আজকে আপনাদের সামনে আরও একটি নতুন আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম আশাকরি আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে অবশ্যই ভালো লাগবে আমরা আজকে যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব সেটি হচ্ছে নগদ একাউন্ট।

অর্থাৎ আমাদের আজকের আলোচনা হচ্ছে নগদ সম্পর্কিত যদি আপনি মোবাইল ফোন ব্যবহার করে থাকেন এবং অনলাইনে মোবাইল ফোন ব্যাঙ্কিং নামটা শুনে থাকেন এক্ষেত্রে অবশ্যই নগদ শব্দটি শুনছেন কেননা এটি হচ্ছে বাংলাদেশের খুব সুনাম ধন্য একটি মোবাইল ব্যাংকিং নেটওয়ার্ক।

যারা মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করেন যেমন বিকাশ, রকেট, শিওর ক্যাশ , উপায় এইগুলো কিন্তু বাংলাদেশের নামকরা কিছু মোবাইল ব্যাংকিং এখানে আরো একটি মোবাইল ব্যাংকিং রয়েছে যার নাম হচ্ছে নগদ 2018 সালের সর্বপ্রথম উদ্বোধন করা হয় বর্তমান সময়ে খুবই জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং অন্যতম একটি হচ্ছে নগদ এখানে আমরা অনেকেই লেনদেন করে থাকি একজন সাধারণ গ্রাহক প্রতি মাসে তিন লক্ষ টাকা তার অ্যাকাউন্টে রাখতে পারবে।

আপনি যদি সাধারন একটি অ্যাকাউন্ট এখানে তৈরি করেন এক্ষেত্রে কিন্তু আপনি টাকা সংরক্ষণ করতে পারবেন মুনাফাও নিতে পারবেন এখান থেকে অর্থাৎ আপনার একাউন্টে যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে ব্যালেন্স থাকে এক্ষেত্রে আপনি এখান থেকে মুনাফা নিতে পারবেন তাদের দুটি অপশন রয়েছে একটি হচ্ছে মুনাফা অপশন এবং অন্যটি হচ্ছে মুনাফা ছাড়া অপশন যেকোনো একটি অপশন বেছে নিয়ে আপনি একাউন্ট তৈরি করতে পারেন বা পরবর্তী সময়ে আপনি এগুলো চেঞ্জ করতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট তৈরি করতে কি কি প্রয়োজন এই বিষয় সর্ম্পকে আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করা হবে একটি নগদ একাউন্ট কিভাবে খুব সহজে তৈরি করা যায় সম্পূর্ণ আর্টিকেল পড়ার অনুরোধ রইল আশাকরি সকলে বুঝে যাবেন কীভাবে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করবেন সাধারণতঃ বর্তমান সময়ে নগদ একাউন্ট তৈরি করা খুবই সহজ আগের থেকে উন্নত মানের হয়েছে।

আপনি চাইলে বাটন মোবাইল ফোন দিয়ে নগদ একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন সম্পন্ন প্রসেসিং আপনাদের সাথে শেয়ার করব এছাড়াও কিভাবে এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন দিয়ে নগদ একাউন্ট তৈরি করবেন এর জন্য আপনাদের সাথে শেয়ার করবো ওই স্ক্রিনশট যেন আপনি খুব সহজেই বুঝে নিতে পারেন কিভাবে নগদ একাউন্ট তৈরি করতে হয়।

নগদ কি ?

এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় খুব সহজে টাকা পাঠানোর অন্যতম একটি উপায় হচ্ছে নগদ আপনি চাইলে বাংলাদেশের যেকোনো স্থান থেকে নগদ একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন খুব সহজেই এবং সর্বনিম্ন রেট আপনি এখান থেকে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিংয়ের থেকে এখানে খুব স্বল্প মূল্যে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন অন্য একটি নগদ একাউন্টে।

এটিকে বলা হয় মোবাইল ব্যাংকিং অনেকেরই ইসলামী ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক , রূপালী ব্যাংক , আরো বিভিন্ন ধরনের ব্যাংক আমাদের বাংলাদেশের রয়েছে যেগুলো মানুষ ব্যবহার করে থাকে সাধারণত যারা শ্রমিকদের দিনমজুর কাজ করে তাদের কিন্তু এ ধরনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকে না তাদের জন্য রয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা যেগুলো ব্যবহার করে আপনি এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় খুব সহজে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

বাংলাদেশে আরও বিভিন্ন ধরনের মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম রয়েছে যেগুলো নাম উপরে উল্লেখ করে দিয়েছি আপনি যদি নগদ একাউন্ট ব্যবহার করতে চান অবশ্যই তাহলে আপনার আমাদের আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণভাবে পড়া দরকার আজকে আপনাদের সাথে দেখানো হবে কিভাবে আপনি খুব সহজে একই নগদ একাউন্ট তৈরি করবেন আপনার হাতে থাকা যেকোনো মোবাইল ফোন দিয়ে মাত্র 2 মিনিটে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

তো আশা করি বুঝে গিয়েছেন নগদ কি এখন দেখব কিভাবে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে হয় সে বিষয়টি দুটি উপায়ে নগদ একাউন্ট তৈরি করা যায় প্রথম উপায়টি হচ্ছে নাম্বার ডায়াল করে নগদ একাউন্ট তৈরি এটি বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় কেননা খুব দ্রুত সময়ে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করা যায় এখান থেকে এটি করার কারণ হচ্ছে সরকারি অনুদানের টাকা গুলো আপনি এখানে নিতে পারবেন।

অর্থাৎ সরকারি ফান্ডের টাকা গুলো যে সাধারণ মানুষ পায় যেমন: স্কুল/ কলেজ উপবৃত্তি , বয়স্ক ভাতা ,বিধবা ভাতা, আরো বিভিন্ন ধরনের সরকারি অনুদান গুলো আপনি খুব সহজেই নগদ একাউন্টে নিতে পারবেন এখানে দুটি ভাগ রয়েছে আমি আপনাদের সাথে সম্পুর্ন ভাবে আলোচনা করব যেন আপনার কাজে আসে এই বিষয়গুলি পরবর্তী সময়ে কোন প্রকার সমস্যা না হয়।

নগদ একাউন্ট *১৬৭# ডায়াল করে খোলার পদ্ধতি। How To Create Nagad account

আপনি আপনার কাছে থাকা যেকোনো ডিভাইস থেকে খুব সহজেই নগদ nagad code দিয়ে একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট গুলি সাধারণত বাটন মোবাইল ফোন দিয়ে তৈরি করা অসম্ভব কিন্তু আপনি নগদ একাউন্ট একটি বাটন ফোন দিয়ে খুব সহজে নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন এবং সম্পূর্ণ কাজ কমপ্লিট করতে পারবেন।

কোড ডায়াল করে নগদ একাউন্ট তৈরি করা বিষয়টি খুব পুরোনো নয় কয়েক বছর আগে থেকে এই সিস্টেমটি চালু করা হয়েছে এর কারণ হচ্ছে আপনি অ্যাকাউন্টটি দিয়ে কি কি ব্যবহার করতে চান অর্থাৎ যারা সরকারি অনুদান গুলো নগদ একাউন্টে নিতে চান তারা অনেকেই হয়তো জানেন না এটি দিয়ে কি কি কাজ করা যায় যার কারণে এই কোডটি দেওয়া হয়েছে যেন আপনি খুব সহজেই একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

বিষয়টি হচ্ছে বর্তমান সময়ে সকলের কাছে মোবাইল ফোন রয়েছে একজন ছোট বাচ্চা থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত সকলের কাছে মোবাইল ফোন রয়েছে এবং সকল মোবাইল ফোনে একটি হলো মোবাইল নেটওয়ার্ক সিম রয়েছে যারা একদম বৃদ্ধ তারা তো আর এন্ড্রয়েড ফোন ক্রয় করে সেটাতে নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবে না যার কারণে নগর থেকে সিস্টেমটি করা হয়েছে শুধুমাত্র কোড ডায়াল এর মাধ্যমে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

এখানে কিছু ধাপ রয়েছে যে ধাপগুলো সম্পন্ন করে আপনি একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন যদি আপনি সরকারি কোন অনুদান নিতে চান নগদ একাউন্টে এক্ষেত্রে মাত্র চারটি ধাপ সম্পন্ন করে আপনার একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন যে সিস্টেম খুবই জনপ্রিয় বর্তমান সময়ে।

*১৬৭# ডায়াল করে নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি। nagad code

যেকোনো একটি মোবাইল ফোন দিয়ে আপনি এটি তৈরী করতে পারবেন সর্বপ্রথম আপনার মোবাইল ফোনে একটি সিম থাকতে হবে এবং অবশ্যই সিমটি সফল থাকতে হবে বন্ধ সিমে কিন্তু আপনি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন না আপনার সিমটি যদি সচল থাকে তাহলে আপনি যেকোনো সিমে নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন খুব সহজে।

ধাপ ১: প্রথম আপনি আপনার মোবাইল ফোনের কিবোর্ড এ চলে যান যেকোন মোবাইল ফোন হলে চলবে বাটন অথবা এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন হল কোন প্রকার সমস্যা নেই। কি বোর্ডে যাওয়ার পর লিখুন *১৬৭# এরপর কল বাটন ডায়াল করুন।

ধাপ ২: এখন আপনাকে একটি পিন (PIN) তৈরি করতে হবে অর্থাৎ আপনার একাউন্টে নিরাপত্তার জন্য অবশ্যই আপনাকে এখানে একটি পিন দিতে হবে আপনি চেষ্টা করবেন স্ট্রং একটি কোড ব্যবহার করার জন্য অর্থাৎ শক্তিশালী একটি কোড ব্যবহার করার জন্য যে কোডটি অন্যকেও আন্দাজ করতে পারবে না।

ধাপ ৩: আমাদের এর পরের ধাপ হচ্ছে আপনি যে উপরের পিনটি দিবেন সেই রকম ভাবে একই পিন পরবর্তী অপশনটিতে আবার সাবমিট করবেন প্রথমে যে পিনটি আপনি সাবমিট করেছেন একইভাবে সেই পিনটি পরবর্তী অপশনে যাওয়ার পর সেখানে সাবমিট করবেন অবশ্যই আপনাকে একটি পিন ব্যবহার করতে হবে কেননা প্রথমটি হচ্ছে একাউন্টে সুরক্ষার জন্য পিন এবং পরবর্তীতে এটি দিতে হবে সেটি হচ্ছে কনফার্ম আপনি কনফার্ম একই পিন এখানে প্রবেশ করাবেন।

ধাপ ৪: সর্বশেষ একটি ধাপ রয়েছে যেটি সম্পূর্ণ করলে আপনার নগদ একাউন্টে তৈরি হয়ে যাবে এখান থেকে আপনি কি মুনাফা পেতে চান ? যদি এখান থেকে মুনাফা পেতে চান তাহলে অবশ্যই “yes” প্রেস করে দিবেন আর যদি আপনি এখান থেকে মুনাফা করতে না চান এক্ষেত্রে আপনাকে প্রেস করতে হবে “No” এই অপশন টি।

আপনার কাজ শেষ হয়ে গেছে এখন দেখতে পারবেন আপনার অ্যাকাউন্টটি তৈরি হয়ে গেছে সাথে সাথে আপনাকে একটি এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার অ্যাকাউন্টটি সম্পর্কে এইভাবে কিন্তু আপনি কোড ডায়াল এর মাধ্যমে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন খুব সহজেই তবে এখানে কিছু কথা রয়েছে যে কথাগুলো অবশ্যই দেখে তারপর আপনি নগদ একাউন্ট তৈরি করবেন তাহলে পরবর্তী ঝামেলা হবে না।

আপনি যদি এইভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন এক্ষেত্রে শুধুমাত্র দুটি সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন আপনার মোবাইল ফোন থেকে সে দুটি সার্ভিস হচ্ছে আপনার মোবাইল ফোন থেকে নগদ একাউন্টে ক্যাশ আউট করতে পারবেন ও অন্যটি হচ্ছে আপনি মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

যদি আপনি এই পদ্ধতিতে অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন এক্ষেত্রে ক্যাশ আউট করতে পারবেন আপনার নগদ একাউন্ট দেখে ও যেকোন নাম্বারে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন কোনভাবেই কিন্তু আপনি আপনার একাউন্ট থেকে সেন্ড মানি করতে পারবেন না এটি অপশনটি একদম বন্ধ হয়ে থাকবে যদি আপনি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন এবং সেখানে যদি আপনার একাউন্টে লগইন করেন।

তাহলে দেখতে পারবেন আপনার নগদ একাউন্ট থেকে সেন্ড মানি অপশনটি বন্ধ হয়ে আছে এছাড়াও আপনি যদি বাটন মোবাইল ফোন থেকে কোড ডায়াল করে দেখেন তাহলে দেখতে পারবেন আপনার একাউন্ট থেকে কে সেন্ড মানি বা অন্যান্য আরো বিভিন্ন সার্ভিস গুলি বন্ধ হয়ে আছে শুধুমাত্র ক্যাশ আউট ও মোবাইল রিচার্জ অপশনটি চালু রয়েছে।

নগদ একাউন্ট থেকে সেন্ড মানি হয় না কেন ?

যদি আপনি এই পদ্ধতিতে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন এবং পরবর্তী সময়ে যদি সেন্ড মানি না হয় তখন কিন্তু আপনি গুগলে সার্চ করবেন যে বা অন্যান্য কারো কাছ থেকে সাহায্য নিবেন নগদ একাউন্ট থেকে সেন্ড মানি হয় না কেন ? এর কারণটি হচ্ছে আপনার একাউন্টে কিন্তু সম্পূর্ণ পাবলিক নয় অর্থাৎ আপনার একাউন্টে শুধুমাত্র সরকারি অর্থ প্রদানের জন্য ব্যবহার করা যাবে।

এইভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করলে আপনাকে যে কেউ টাকা পাঠাতে পারবে কিন্তু আপনি চাইলে কাউকে সেন্ড মানি করতে পারবেন না যেহেতু সরকারি অর্থ প্রদানের জন্য এরকম সিস্টেম করা হয়েছে যার কারণে আপনি আপনার একাউন্টের ব্যালেন্স ক্যাশ আউট করে বের করতে পারবেন মোবাইল অপারেটর দোকান থেকে কিন্তু সেন্ড মানি করতে পারবেন না আমাদের অনেক ক্ষেত্রে সেন্ড মানি করা প্রয়োজন হয়ে থাকে।

আপনি যদি আপনার একাউন্টে সকল সার্ভিস একটিভ করতে চান এক্ষেত্রে আপনার অ্যাকাউন্টটি পাবলিক করতে হবে অর্থাৎ আপনার একাউন্টে পাবলিক সার্ভিস করতে হবে তাহলে কিন্তু সকল ধরনের সার্ভিস আপনি ব্যবহার করতে পারবেন এর জন্য আপনার একাউন্টে আপনার সমস্ত তথ্য প্রদান করতে হবে যে বিষয়গুলো আমি নিচে দেখিয়ে দেবো।

যদি আপনি আপনার অ্যাকাউন্টটি পাবলিক তৈরি না করেন এক্ষেত্রে শুধুমাত্র ক্যাশ আউট ও মোবাইল রিচার্জ সার্ভিসটি ব্যবহার করতে পারবেন আর যদি আপনি আপনার নগদ একাউন্টে পাবলিক করে নেন এ ক্ষেত্রে সকল ধরনের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা হবে না।

আপনার একাউন্টে পাবলিক করার জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান করতে হবে নগদ সেবা কারীদের কাছে অর্থাৎ অফিশিয়াল অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান করতে হবে তাদের কাছে যদি সবকিছু সঠিকভাবে প্রদান করতে পারেন তাহলে আপনার একাউন্টে পাবলিক হয়ে যাবে এবং আপনি সকল ধরণের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন নগদ একাউন্টে থেকে।

এখন আমরা দেখব কিভাবে আপনি নগদ অ্যাপ্লিকেশন থেকে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করবেন খুব সহজে বিস্তারিতভাবে আপনাদের সাথে স্ক্রিনশট এর মাধ্যমে আরও সহজে খুজে দেওয়ার চেষ্টা করব আশাকরি সকলে বুঝে যাবেন স্ক্রিনশট দেখে আমার একটি নগদ একাউন্ট তৈরী করা রয়েছে আমি শুধু দেখানোর জন্য আপনাদের সাথে স্ক্রীনশট গুলো শেয়ার করবো এবং কোন অপশনে কি কি লিখতে হবে সেই গুলো আমি আপনাদেরকে বলে দিব।

অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি। ২০২২

আপনি চাইলে খুব সহজেই একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন অফিশিয়াল অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে খুব সহজেই এবং এখান থেকে যদি আপনি একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন তাহলে কিন্তু সেই একাউন্টে অটোমেটিকভাবে পাবলিক হয়ে যাবে আপনি এই অ্যাকাউন্ট থেকে সকল ধরণের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন অনেকেই হয়তো মনে করতে পারেন যেখানে সরকারি অনুদান আসবেনা ?

ধারণাটি ভুল যদি আপনি এখান থেকে অ্যাকাউন্টটি তৈরি করেন তাহলে সকল ধরণের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন এছাড়াও আপনার সরকারি সকল অর্থ এখানে নিতে পারবেন খুব সহজেই মূলত কোড ডায়াল করে অ্যাকাউন্ট তৈরি করার মাধ্যমটি চালু করার কারণ হচ্ছে যারা বৃদ্ধ তারাও যেন খুব সহজে নগদ একাউন্ট সার্ভিস ব্যবহার করতে পারে সেজন্য কোড ডায়াল করে অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সিস্টেম চালু করা হয়েছে।

আর যদি আপনার অন্যান্য কাজে প্রয়োজন হয় এর জন্য অ্যাকাউন্টটি পাবলিক করে নিতে হবে তাহলে আপনি সকল ধরনের সার্ভিস বা কাজ করতে পারবেন আপনার নগদ একাউন্ট থেকে যদি আপনি এখান থেকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন অর্থাৎ নগদ অ্যাপ থেকে একাউন্ট তৈরী করেন তাহলে একদম সহজ হয়ে যাবে সকল ধরণের সার্ভিস ব্যবহার করার ক্ষেত্রে।

অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট তৈরি করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে গুগল প্লে স্টোর থেকে Nagad অ্যাপ্লিকেশনটি আপনার মোবাইল ফোনে সংরক্ষণ করতে হবে এবং পরবর্তী সময়ে ইন্সটল করতে হবে অবশ্যই আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে এটি ইন্সটল করে নিবেন তাহলে সকল ধরনের আপডেট এখানে দেখতে পারবেন এবং কোন প্রকার ভাইরাস এখানে কিন্তু থাকবে না একদম ক্লিয়ার থাকবে।

গুগল প্লে স্টোরে যাওয়ার পরে সেখানে সার্চ করুন নগদ লেখে তাহলে পেয়ে যাবেন যেমন ত নিচের স্ক্রিনশটে দেখা যাচ্ছে অ্যাপ্লিকেশনটি আপনি এটি আপনার মোবাইল ফোনে সর্বপ্রথম ইন্সটল করে নিবেন নগদ একাউন্ট তৈরি করার জন্য।

Nagad app 

এখান থেকে আপনার নগর এপ্লিকেশনটি ইন্সটল করতে হবে তো আমার টি পেন্ডিং রয়েছে যখন আপনার এপ্লিকেশনটি ইন্সটল হয়ে যাবে তার পরবর্তী সময় আপনাকে একটি ভিতরে প্রবেশ করার জন্য অ্যাপ টি ওপেন করতে হবে যেমনটা নিচে একটি স্ক্রিনশট দেখতেছেন এখানে ক্লিক করে আপনি অ্যাপ্লিকেশন টি চালু করে নিবেন।

Nagad account open

এখন আমাদেরকে নগদ অ্যাপ্লিকেশনটিতে প্রবেশ করতে হবে এবং প্রবেশ করার পর আমরা দেখতে পারবো লগইন নামের একটি অপশন আমাদের সামনে শো করতেছে এর নিচে দেখতে পারবেন রেজিস্ট্রেশন নামের আরও একটি অপশন রয়েছে যেখানে ক্লিক করে আমাদেরকে নতুন করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে অর্থাৎ আপনি যদি নগদ এর নতুন ইউজার হয়ে থাকেন এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে তাহলে আপনি সম্পূর্ণ একটি নগদ একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন।

রেজিস্ট্রেশন করার জন্য রেজিস্ট্রেশন নামের যে অপশনটা আছে সেখানে ক্লিক করে দেবেন এবং আমাদের পরবর্তী ধাপগুলো স্ক্রিনশট এর মাধ্যমে আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

Nagad account registration

এর পরবর্তীতে অপশনটি আমাদের সামনে আসবে সেখানে আমাদেরকে মোবাইল নাম্বার দিতে হবে অর্থাৎ আপনি যে মোবাইল নাম্বারটিতে নগদ একাউন্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন সেই মোবাইল নাম্বারটি এখানে প্রবেশ করাতে হবে নগদ একাউন্ট তৈরি করার জন্য তো অবশ্যই এখানে নগদ একাউন্ট তৈরি করা নয় এরকম একটি নাম্বার প্রবেশ করাবেন।

এরপর হচ্ছে অবশ্যই আপনাকে এখানে 11 ডিজিটাল মোবাইল নাম্বারটি যুক্ত করতে হবে সম্পূর্ণ মোবাইল নাম্বারটা এখানে আপনি বলে দেবেন যেমনটা স্ক্রিনশট দেখতেছেন আমি তুলে দিয়েছি অবশ্যই একটি নাম্বার এখানে দিতে হবে যে কোন নাম্বার দিতে পারবেন অবশ্যই সে নাম্বারে যেন নগদ একাউন্ট তৈরী না থাকে।

Nagad account Namber

নাম্বারটি প্রবেশ করানোর পর পরবর্তী অপশনটি রয়েছে সেখানে ক্লিক করে দিবেন তাহলে আমরা পরবর্তী কাজগুলো করতে পারব তো অবশ্যই 11 ডিজিট মোবাইল নাম্বারটি এখানে প্রবেশ করাতে হবে।

উপরে যে স্ক্রিনশটটি হয়েছে এখানে সিলেক্ট করতে হবে আপনার সিমটি কোন নেটওয়ার্ক এর আওতাধীন রয়েছে যেমন এখানে রয়েছে টেলিটক’ রবি , গ্রামীন , বাংলালিংক , এয়ারটেল আপনি যে মোবাইল নেটওয়ার্ক সিম ব্যবহার করতেছেন সেই সিম টি এখান থেকে সিলেক্ট করে দিবেন তাহলে এখানকার কাজ শেষ হয়ে যাবে।

এরপর আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র এখানে সাবমিট করতে হবে অর্থাৎ আপনাকে সমস্ত কাজ সম্পন্ন করার জন্য অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র এখানে দিতে হবে আপনার তথ্যগুলি যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে আপনার একাউন্টে সুন্দরভাবে তৈরি করতে পারবেন তাছাড়া কিন্তু আপনি অ্যাপ্লিকেশন থেকে কোন ভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন না অবশ্যই আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র প্রয়োজন হবে।

যেকারো জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করতে পারেন তবে অবশ্যই তার নাম দিয়ে আপনাকে অ্যাকাউন্টটি তৈরি করতে হবে স্মার্ট কার্ড অথবা ন্যাশনাল কার্ড ব্যবহার করতে পারেন একাউন্ট তৈরি করার জন্য যেকোনো একটি কার্ড ব্যবহার করলেই হবে।

এখানে ক্যামেরার মত একটি করে লোগোর রয়েছে আপনি এখানে ক্লিক করে ছবি তুলতে পারবেন প্রথমে যে অপশনটি রয়েছে এখানে ক্লিক করে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র সামনের দিকের ছবি তুলে দিবেন এবং নিচের দিকে যে একটি লোগো রয়েছে সেখানে ক্লিক করে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের পিছনের দিকে যে বাকি অংশ রয়েছে সেখান থেকে একটি ছবি তুলে দিবেন।

এর পরের ধাপ হচ্ছে আপনি দেখতে পারবেন আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র সমস্ত তথ্য নতুন একটি পেজে চলে এসেছে সেখান থেকে চাইলে আপনি আরো বিভিন্ন ধরনের তথ্য এডিট করতে পারেন অর্থাৎ চেঞ্জ করে দিতে পারেন কোন প্রকার সমস্যা নেই তবে মেইন নাম জন্মতারিখ এইগুলো চেঞ্জ করবেন না এগুলো যে রকম থাকবে এরকম ভাবে রেখে দিব তাহলে কোন প্রকার সমস্যা হবে না।

এরপর বাকি যে তথ্যগুলো রয়েছে এগুলো আশা করি আপনি দিতে পারবেন আপনাকে ফেসবুকে করতে হবে অর্থাৎ যার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে আপনি একাউন্ট তৈরি করবেন অবশ্যই তার ফেস দিয়ে একাউন্ট ভেরিফাই করতে হবে তা না হলে কিন্তু এখানে তৈরি করতে পারবেন না যার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে আপনি নগদ একাউন্ট তৈরি করবেন তার ফেস ভেরিফাই করে নিবেন।

পরবর্তী স্টেপগুলো স্ক্রিনশট না দিতে পেরে আমি খুবই দুঃখিত আশাকরি আপনি পরবর্তী কাজগুলো খুব সহজেই করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই যদি কোন প্রকার কাজ করতে সমস্যা হয় অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন সেটা সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব যখন আপনার সমস্ত কাজ কমপ্লিট হয়ে যাবে তখন আপনার অ্যাকাউন্টটি তৈরি হয়ে যাবে এবং আপনাকে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার একাউন্টি প্রস্তুত হয়েছে অর্থাৎ তৈরি করা সম্পন্ন হয়েছে।

তার পরবর্তী সময় থেকে কিন্তু আপনি অ্যাকাউন্টটি ব্যবহার করতে পারবেন এবং সকল ধরনের সার্ভিস সেখানে ব্যবহার করতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা হবে না আশা করি আপনি খুব সহজভাবেই নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম। Nagad balance cheak code.

আপনার নগদ একাউন্টে থাকা ব্যালেন্স আপনি দুই ভাবে দেখতে পারবেন একটি হচ্ছে কোড ডায়াল এর মাধ্যমে এবং অন্যটি হচ্ছে অ্যাপের মাধ্যমে আপনি যদি তাদের অ্যাপটি ব্যবহার করেন এক্ষেত্রে আপনাকে সর্বপ্রথম ব্যালেন্স দেখার জন্য অ্যাপ্লিকেশনটিতে লগইন করতে হবে অর্থাৎ যখন আপনি অ্যাপ্লিকেশনটিতে লগইন করবেন তখন আপনার কাছে পাসওয়ার্ড চাই পাসওয়ার্ড দেওয়ার পর আপনি অ্যাপ্লিকেশনটিতে প্রবেশ করবেন।

এরপর আপনাকে উপরে ব্যালেন্স নামের একটি অপশন দেখতে পারবেন সেখানে ট্যাপ করতে হবে সেইখানে ট্যাপ করার পরে দেখতে পারবেন আপনার ব্যালেন্স কত টাকা রয়েছে খুব সহজে অ্যাপের মাধ্যমে ব্যালেন্স দেখা যায় নগদে।

কোড ডায়াল মাধ্যমে আপনি চাইলে নগদ এর ব্যালেন্স দেখতে পারবেন খুব সহজেই সর্বপ্রথম আপনাকে যেতে হবে মোবাইল ফোনের কিবোর্ডে এবং সেখানে গিয়ে দেখবেন *১৬৭# এরপর দেখতে পারবেন মাই একাউন্ট নামে একটি অপশন রয়েছে সেখানে ক্লিক করবেন এবং তার পরবর্তীতে স্টেপ গুলি রয়েছে সেখানে লিখে দেওয়া রয়েছে আপনি সেগুলো দেখে ক্লিক করার পর আপনার ব্যালেন্স দেখতে পারবেন খুব সহজে।

নগদ হেল্প লাইন নাম্বার। nagad helpline।

আপনার যেকোন প্রয়োজনের নগদ এর হেল্পলাইন এ যোগাযোগ করতে পারেন আপনার একাউন্ট এ কোন প্রকার সমস্যা হলে বা আপনি যদি কোন কিছু চেঞ্জ করতে চান এক্ষেত্রে কেন নগদ কাস্টমার কেয়ারে কল করে আপনার সমস্যাটির সমাধান করে নিতে পারেন খুব দ্রুত সময়ে অনেক সময় আমরা আমাদের অ্যাকাউন্টে সমস্যাগুলো বুঝতে পারি না যার কারণে সেই সমস্যাগুলো সমাধান করা খুবই কঠিন হয়ে যায় আমাদের জন্য।

এ সময় আপনি চাইলে নগদ এর হেল্পলাইনে যোগাযোগ করে আপনার সমস্যাটির সমাধান নিতে পারেন খুব সহজেই সব সময় কিন্তু তারা একটিভ থাকে অর্থাৎ আপনি যেকোন সময় তাদেরকে কল করলে আপনি সঠিক সমাধান পেয়ে যাবেন আপনার সমস্যাটির 24 ঘন্টায় কিন্তু আপনি তাদের সাথে যে কোন মুহূর্তে কথা বলতে পারবেন এবং আপনার সমস্যাটির সমাধান নিতে পারবেন এছাড়া কোন কিছু যদি আপনি চেঞ্জ করতে চান এক্ষেত্রে তাদের সাথে প্রথমে যোগাযোগ করে নিবেন।

অনেক সময় আমরা বিভিন্ন বিষয়ে চেঞ্জ করে থাকি এবং পরবর্তী সময়ে সেই বিষয়গুলো সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় তখন যদি আমরা কাস্টমার কেয়ারে কল করি বা তাদের সাথে যোগাযোগ করে এক্ষেত্রে তারা বলে এ সমস্যাটির সমাধান হতো করা খুবই মুস্কিল সেজন্য কিছু চেঞ্জ করার আগে অবশ্যই তাদের সাথে কথা বলে নেবেন কাস্টমার কেয়ারে কল করে তাহলে পরবর্তী সময়ে কোন সমস্যা হবে না আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

আপনি খুব সহজেই তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন তাদের হটলাইন নাম্বার এবং টেলিফোন নাম্বার রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে খুব দ্রুত সময়ে আপনি তাদের সাথে কন্টাক করতে পারবেন এর জন্য নিচে দুটি নাম্বার দিয়ে দিচ্ছি যে কোন নাম্বারে আপনি কল করে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন খুব দ্রুত সময়ে আশা করি তাদের থেকে সঠিক সমাধান পেয়ে যাবেন।

নগদ কাস্টমার কেয়ার নাম্বার 16167 বা 096 096 16167

আশা করি বুঝতে পেরেছেন যদি কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হয়ে থাকে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আপনার সমস্যার সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব সকলে ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.